Tuesday , May 21 2019
Home / রাজনীতি / বিবাহিত হয়েও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কমিটিতে যারা

বিবাহিত হয়েও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কমিটিতে যারা

আংশিক কমিটি গঠনের দীর্ঘ ১০ মাসের মাথায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়েছে। আর এই পূর্ণাঙ্গ কমিটি নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে বিক্ষোভ-মিছিল করেছেন পদবঞ্চিতরা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মধুর ক্যান্টিন থেকে গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় এক বিক্ষোভ মিছিল বের করেন ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে পদবঞ্চিতরা।

মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে দিয়ে ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসিত) অবস্থিত সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে গিয়ে শেষ হয়। মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন তারা।

এসময় পদবঞ্চিতরা অভিযোগ করেন, বিবাহিত হয়েও অনেককে পদ দিয়েছেন শোভন-রাব্বানী। আর এজন্য পদ পাওয়া ওইসব নেতাকর্মীদের কাছ থেকে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন সুবিধা আদায় করে নিয়েছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।

প্রমাণ হিসাবে পদবঞ্চিতরা যাদের নাম জানিয়েছেন তারা হলেন-কেন্দ্রীয় কমিটিতে সহ-সভাপতি পদ পাওয়া সোহানী তিথি, সাংস্কৃতিকবিষয়ক উপ-সম্পাদক পদ পাওয়া আফরিন সুলতানা লাবণী, উপ-সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক পদ পাওয়া রুশী চৌধুরী, সহ-সম্পাদক পদ পাওয়া আনজুমান আরা আনু ও সামিহা সরকার সুইটি। এরা সবাই বিবাহিত বলে জানান তারা। এছাড়াও সহ-সভাপতি ইশাত কাসফিয়া ইরাও বিবাহিত বলে অভিযোগ করছেন কেউ কেউ।

ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্রের ৫-এর গ ধারা অনুযায়ী বিবাহিত ব্যক্তি ছাত্রলীগের কমিটিতে স্থান পাবেন না। গঠনতন্ত্রের সেই ৫-এর গ ধারাকে লঙ্ঘন করে এসব নেতাকর্মীদের কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান দেয়া হয়েছে জানিয়ে প্রতিবাদ করেছেন পদবঞ্চিতরা।

গত সোমবার ছাত্রলীগের ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটির আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করা হয়। পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে সহ-সভাপতি হয়েছেন ৬১ জন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন ১১ জন, সাংগঠনিক সম্পাদকের পদ পেয়েছেন ১১ জন। এছাড়া বিষয়ভিত্তিক সব সম্পাদক এবং সহ-সম্পাদক ও উপ-সম্পাদকের নামও ঘোষণা করা হয়।

About RASEL RASEL

Check Also

বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাখ্যান ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতদের

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে হামলার ঘটনায় ছাত্রলীগের পাঁচ নেতাকর্মীকে বহিষ্কারের বিষয়টি প্রত্যাখান করেছে পদবঞ্চিতরা। সোমবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *